একবিংশ শতাব্দীতে প্রযুক্তির সবচেয়ে বড় উপহার অনলাইন শপিং। আর বর্তমান সময়ে অনলাইন শপিং এর সাথে পরিচিত না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া বেশ দুষ্কর। অনলাইন শপিং আপনাকে দিবে ঘরে বসে রোদ-বৃষ্টি আর ট্রাফিক জ্যামের মধ্যে দোকান ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা করার বিরক্তিকর অভিজ্ঞতা থেকে চিরমুক্তি। এসব সুযোগ-সুবিধা শুধুমাত্র এন্ড কাস্টমারদের জন্য হলেও এর সুবিধা পায়নি কোন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বা উদ্যোক্তারা। তারা তাদের পণ্য সরবরাহ থেকে শুরু করে পণ্য দোকান পর্যন্ত আনা সবকিছুই নিজে নিজেই করে থাকেন, যা বেশ সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। পাশাপাশি এতে খরচও হয় অনেক। এছাড়া পণ্য সংগ্রহ করার জন্য দোকান বন্ধ করার ফলে ব্যবসায়ে ক্ষতি তো আছেই। এসকল সমস্যা নিরসনে কাজ করে যাচ্ছে দেশীয় বি-টু-বি মার্কেটপ্লেস প্রিয়শপ। 

আমাদের দেশের অধিকাংশ রিটেইলারই গতানুগতিক রিটেইল ব্যবসায়ের সাথে অভ্যস্থ। পণ্য সংগ্রহ থেকে শুরু করে পণ্য দোকান পর্যন্ত নিয়ে আসা, ক্রেতার হিসাব রাখা সবকিছু সে গতানুগতিক ধারায় একাই করে আসছে। প্রথমত, বিভিন্ন পণ্য সংগ্রহের জন্য ভিন্ন ভিন্ন সাপ্লাইয়ারের কাছে যেতে হয় যা বেশ সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এছাড়া বেশির ভাগ দোকানিই একা দোকান সামলায়; সেক্ষেত্রে দোকান বন্ধ রেখে সাপ্লাইয়ারের কাছে যেতে হয়। এতে করে বিক্রি এবং ব্যবসায়ের ক্ষতি হয়। এছাড়া যাওয়া-আসাসহ পণ্য পরিবহনে বেশ বড় অংকের টাকা খরচ হয়। 

প্রিয়শপ এই সমস্যা সমাধানে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের প্রয়োজনীয় সকল ব্র্যান্ডকে একই প্ল্যাটফর্মে নিয়ে এসেছে। এতে করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা প্রিয়শপ এ্যাপের মাধ্যমে তাদের প্রয়োজনীয় সকল পণ্য যখন খুশি তখন অর্ডার দিতে পারবে। অর্ডার পাওয়ার পরই প্রিয়শপ লজিস্টিক টিম তাদের সেই সকল পণ্য রিটেইলারদের সাপ্লাই চেইন সংক্রান্ত সকল সমস্যা পাশ কাটিয়ে তাদের দোকানে পৌঁছে দেয়। এতে করে রিটেইলাররা তাদের ব্যবসায়ে বেশি সময় দিতে পারছে। এবং তাদের ব্যবসায় আগের তুলনায় অন্তত ২০% পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে যা তাদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে বেশ ভূমিকা রেখেছে। 

 

কেন প্রিয়শপ থেকে অর্ডার করবেন:

 

ট্র্যাডিশনাল ব্যবসায় করে আসা সকল রিটেইলারকে ডিজিটাইলজেশনের মাধ্যমে নতুন ধারায় নিয়ে আসার পাশাপাশি তাদের জীবন-মান উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে প্রিয়শপ। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে প্রিয়শপ দিচ্ছে বিভিন্ন সুবিধাসমূহ। এর মধ্যে-

১. সব সমাধান এক অ্যাপে: প্রিয়শপ রিটেইলারদের দিচ্ছে এক অ্যাপে সকল পণ্যের সুবিধা। এতে করে তাদেরকে ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে প্রোডাক্ট সংগ্রহের ঝামেলা পোহাতে হয় না।

২. লজিস্টিক সাপোর্ট: ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে পণ্য সংগ্রহের পর দোকান পর্যন্ত নিয়ে আসা।  এর পেছনেই একজন রিটেইলারদের খরচ ও সময় চলে যায়। এ সমস্যা সমাধানে প্রিয়শপে পাচ্ছেন প্রিয়শপ অ্যাপের মাধ্যমে যখন খুশি তখন অর্ডার দেয়ার এবং স্বল্প সময়ের মধ্যে ফ্রি ডেলিভারির সুবিধা।

৩. বাকিতে কেনার সুবিধা: প্রিয়শপ এ্যাপের মাধ্যমে যেকোন রিটেইলার শর্ত সাপেক্ষে বাকিতে পণ্য ক্রয় করতে পারে।

৪. দেশের প্রথম হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটপ্লেস: প্রিয়শপ দিচ্ছে দেশের প্রথম হোয়াটসঅ্যাপ মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে অর্ডার করার সুবিধা। যা তার শপিং এক্সপেরিয়েন্সকে আরো সহজ ও দ্রুত করে তোলে। 

 

প্রিয়শপ তাদের রিটেইলারদের চাহিদা বুঝে। এবং সেসব নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও প্রিয়শপ তাদের গ্রাহকদের জন্য নানান সুবিধা নিয়ে আসবে। এবং এই সেবার পরিধি খুব শীঘ্রই দেশের ৬৪ জেলার রিটেইলাররা উপভোগ করতে পারবে।   

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *